Hello, বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে তোমাদের সাথে শেয়ার করবো মোবাইল থেকে online কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এবং কি কি উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায় এছাড়া সত্যি মোবাইল থেকে টাকা ইনকাম করা কি সম্ভব? আমার উত্তর হ্যাঁ। তুমি যদি এই বিষয়ে জানতে আগ্রহী হন এবং মোবাইল থেকে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলে টি সম্পূর্ণ পড়ুন আর তোমার মনের সমস্ত doubt গুলো clear করুন।

কারণ আমরা অনেক YouTube, Facebook এ কোনো না কোনো একটা ভিডিওতে মোবাইল থেকে টাকা ইনকাম করা ব্যাপারে অনেকে শুনেছি কিন্তু আমরা সেই বিষয়ে কখনো চেষ্টা করিনি কারণ যে বিষয় বিষয় গুলোর সম্পর্কে ভিডিও গুলোতে বলে সেগুলোর সম্পর্কে আমাদের কোনো ধারণাই নেয় বা চেষ্টা করার পর ব্যর্থ হয়ে গিয়ে ভিডিওটা মিথ্যা বলে বাদ দিয়ে দেয়।

কিন্তু আজ আমি বলবো ওই ভিডিওতে যেগুলো বলা হয় সেগুলো সব সত্য না হলেও কিছুটা তো অবশ্যই সত্য। কারণ একটা মানুষ সে যখন কোন ও ভিডিও বানাই বা আর্টিকেলে লেখেন সে সবসময় চাই তার নিজের উপর experience করে তারপর সে সেই বিষয়ের উপর ভিডিও বা আর্টিকেলে তৈরী করে যেমন উদহারণ সরূপঃ আমি বা এই ব্লগ। কিন্তু এই অনলাইন বিশ্বে অনেক টাকা ইনকাম এর ভিডিও আছে যেগুলো পুরো মিথ্যা যে বিষেয়ে পরে একটা আর্টিকেলে দেব তোমাদের কে।

তবে আমি এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে তোমাদের সাথে যে বিষয় গুলো শেয়ার করবো সেগুলো ১০০% (genuine) অরজিনাল এবং এই বিষয় গুলো follow করে যেকেউ ঘরে বসে সহজে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে যেমন – একজন ছাত্র, শিক্ষক, চাকরিজিবি, ঘরের বউ বা অন্য কেউ। কারণ এই ব্লগের মূল উদ্দেশ হলো সকল কে অনলাইন ইনকাম এর জন্য সাহায্য করা। So, আমি নিজের উপর যে বিষয়ে এক্সপিরিয়েন্স করি এবং সেটার যদি ফল ভালো হয় তাহলে র সেটাকে আমি তোমাদের সাথে শেয়ার করি।

এবার কথা হলো টাকা ইনকাম করবো কিভাবে? অনলাইন বা Internet থেকে টাকা ইনকাম করার জন্য আমি তোমাদের কে ৮ – ৯ টি way সম্পর্কে বলবো এবং সেগুলোর সম্পর্কে সংকিপ্ত বিবরণ দেব যেগুলো কাজে লাগিয়ে নিজের দক্ষতা দিয়ে একটা চাকরির থেকে বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবে এবং নিজের একটা boss ফ্রি জীবন কাটাতে পারবে যেমন আমি।

তবে তোমাকে এখানে একটু টাইম দিতে হবে কারণ যারা এই লাইনে একদম নতুন তাদের কে এই বিষয়ে শিখতে হবে তারপর ইনকাম শুরু হবে আর যারা একটু অর্ধেক অভিজ্ঞতা আছে অনলাইন সম্পর্কে তারা খুব শিগ্গিরী টাকা ইনকাম করতে পারবে।

money-taka

Online কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় ?

মোবাইল মাধ্যমে online থেকে টাকা ইনকাম করার মূলত যে way সেগুলো হলো :

Video Making :

ভিডিওর কথা শুনলে আমরা সবার প্রথমে যেটা ধারণা করি সেটা হলো ইউটুবে হা তুমি মোবাইল দিয়ে একটি ভিডিও বানিয়ে সেটাকে তুমি ইউটুবে, ফেসবুকে, LinkedIn, ইনস্টাগ্রাম এর মতো সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফ্রমে শেয়ার করে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

এবার কথা হলো কি বিষয়ে ভিডিও বানাবো ? আমি তোমাকে রেকমেন্ড করবো তোমার যেই বিষয়ের উপর সবথেকে বেশি ইন্টারেস্ট বা অভিজ্ঞতা আছে সেই বিষয়ে ভিডিও বানানোর জন্য কারণ তুমি যদি অন্য কারো ভিডিও দেখে তার মতো ভিডিও বানাতে শুরু করো তাহলে তুমি success হতে পারবে না। সেই কারনে তোমার যেই বিষয়ে বেশি আগ্রহ এবং long টাইম ভিডিও বানাতে পারবে সেই বিষয়ে শুরু করুন।

এবার অনেক বলবে ইউটুবে ভিডিও ছাড়া যায় জানি কিন্তু অন্য প্লাটফ্রম গুলোতে কি ছাড়া যায় ? উত্তর হা তুমি ফেসবুকে, LinkedIn, ইনস্টাগ্রাম এছাড়া অনেক প্লাটফ্রম আছে যেখানে তুমি ভিডিও উপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবে। আর ইউটুবে যেমন চ্যানেল খোলার পর সেখনে ভিডিও আপলোড করা যায় এই প্লাটফ্রম গুলোতে একই ভাবে তোমার একটি পেজ বানিয়ে সেখনে ভিডিও গুলো আপলোড করতে পারবে। এক্ষেত্রে তোমার অনেক সাইট দিতে ইনকামের রাস্তা বার হয়ে যাবে এবং তুমি তাড়াতাড়ি grow করতে পারবে।

Podcast :

podcast এটা একটা নিয়তুন way অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য এই বিষয়ে অনেকে হয়তো জানে না কিন্তু এটা একটা খুব সহজ রাস্তা। podcast হলো একটা ইউটুবের মতো কিন্তু এখানে তোমাকে কোনো ভিডিও বানানোর প্রয়জন হবে না।

এখানে শুদু তোমাকে audio recording করতে হবে যেমন – সানডে সাসপেন্ড, song, বা অন্য কোনো গল্প বানাতে হবে কোনো ভিডিও ছাড়া আর এই পডকাস্ট বানিয়ে তুমি Buzzsprout, Captivate, Transistor, Castos, Podbean, Simplecast, Resonate, Audioboom এর মতো সাইট গুলোতে podcast আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

এই podcast কিভাবে তৈরী করে বা কিভাবে এখান থেকে টাকা ইনকাম করে জানার জন্য তুমি গুগল বা ইউটুবে সার্চ করে ডিপলি জানতে পারো। আর যদি এই বিষয়ে আরো ভালোভাবে জানতে চান তাহলে এই বাংলা ব্লগ সাইট টিকে subscribe করে রাখুন। কারণ পৰিৱৰ্তী আর্টিকেলে আমি এই podcast সম্পর্কে details আর্টিকেল তোমাদের সাথে শেয়ার করবো।

Affiliate Marketing :

Affiliate Marketing এটি একটি খুব সহজ এবং অনলাইনে জনপ্রিয় ওয়ে যেটাকে ব্যাবহার করে অনেক propeller মার্কেটার লক্ষ টাকা ইনকাম করছে অনলে থেকে এবং অনেক এটা ব্যবসা হিসাবে কাজে লাগিয়ে ইনকাম করে।

মূলত এই Affiliate Marketing টি হলো তোমাকে অন্য অনলাইন বিশ্বে অন্য কারো product কে sale করার কারণে সে তোমাকে কিছু টাকা কমিশন হিসাবে দেয় , যেমন মনো করো amazon যে পণ্য গুলো পাওয়া যায় সেগুলো তুমি যদি তোমার বন্ধুদের সাথে বা পরিবারের সাথে শেয়ার করো আর সেই শেয়ার করা লিংক থেকে যদি কেউ পণ্যটি কেনে তাহলে তুমি টার্ট বদলে ৩-৭০% পর্যন্ত কমিশন পাবে।

উদাহরণ আমরা ইউটিউবে যে ভিডিও গুলো দেখি বা ব্লগে যে আর্টিকেলে গুলো পড়ি তার description বক্সে যে লিংক গুলো দেওয়া থাকে এবং আমাদের কে ওই product কেনার জন্য description বক্সে দেয়াও লিংক ব্যাবহার করার জন্য বলে। যদি আমরা ওই লিংক গুলো ব্যাবহার করে পণ্য টি ক্রয় করি তাহলে সে তার বদলে একটা কমিশন পাবে এটাকে বলে affiliate মার্কেটিং।

সেটা যেকোন ধরনের পণ্য হতে পারে। তবে এই এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে গেলে তোমাকে প্রথম একটা affiliate প্লাটফ্রমে যুক্ত হতে হবে যেমন Amazon, flipkart, myntra আচার আরো অনেক। তবে এখানে affiliate যুক্ত হওয়ার জন্য তোমার কাছে একটি ব্লগ সাইট, ইউটুবে চ্যানেল, বা ফেইসবুক পেজ থাকা দরকার এবং সেখানে কিছু follower লাগবে নাহলে অনেক affiliate প্লাটফ্রম আছে যারা তোমাকে approve করবে না।

তো সেক্ষেত্রে আমি তোমাকে এমন প্রোভাইডার নাম বলবো যেখনে এগুলো কিছু লাগে না যেমন তার জন্য no ১ প্লাটফ্রম হলো EarnKaro.com, Cashkaro.com, Meesho.com, Admitad.com, Cuelinks.com এখান থেকে তুমি Amazon, Flipkart, Myntra মতো অনেক প্লাটফ্রম এক সাথে জয়েন হয়ে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে। তারপর তোমার affiliate মার্কেটিং এর উপর আইডিয়া এসে গেলে তুমি আরো অন্য অন্য প্লাটফ্রম সাথে যুক্ত হয়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবে।

Blogging :

ব্লগ্গিং এটা অনেকেই জানে। ব্লগিং বলতে মূলত বোঝায় তোমার যেই বিষয়ের উপির শব্দে বেশি এক্সপিরিয়েন্স আছে সেই বিষয়ে উপর একটি ব্লগ খুলে সেখনে তুমি আর্টিকেলের মাদ্দের তোমার এক্সপিরিয়েন্স গুলো শেয়ার করে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

যেমন আমার এক্সপিরিয়েন্স ব্লোগ্গিং এর উপর তো আমি সেই কারণে এই ব্লগের মাধ্যমে তোমাদের সাথে ব্লোগ্গিং, অনলাইন ইনকাম, ইউটুবে এছাড়া আরো অন্য অন্য বিষেয় আর্টিকেলে লিখে তোমাদের সাথে শেয়ার করি এবং সেখান থেকে আমি বিভিন্ন উপায়ে টাকা ইনকাম করি।

যেমন আমার যে ব্লগ আর্টিকেল গুলো লিখি সেখানে affiliate লিংক যুক্ত করে, গুগল adsence ad লাগিয়ে, do-follow ও no-follow লিংক বিক্রিয় করে, guest পোস্ট লিখিয়ে, sponsor পোস্ট থেকে, আরো অন্য অন্য উপাইয়ে ব্লগ থেকে ইনকাম করি।

টিপস

তো তুমিও চাইলে তোমার এক্সপিরিয়েন্সের উপর একটা ব্লগ বানাতে পারো। ফ্রীতে ব্লগ কিভাবে বানানো যায় সেই বিষয়ে জানতে এই লিংকে ক্লিক করুন বা এই ব্লগের ব্লোগ্গিং টিপস এর আর্টিকেলে গুলো পড়তে পারো যেখানে ব্লোগ্গিং সমন্দে ওমস্ত টিপস গুলো দেওয়া আছে, ওই টিপস গুলো follow করলে তুমি খুব সহজে ব্লগ বানাতে পারবে।

Photography :

Photography এই ক্যাটাগরি কাজটি অনেকের স্পেশাল choice এর কাজ কারণ আমার প্রায় সকলে ফোটোগ্রাপি করতে পছন্দ করি কিন্তু আমরা জানি না যে এই Photography করে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। যেমন -আমরা অনেক সময় অনেক সুন্দর সুন্দর ছবি তুলে থাকি এবং সেই ছবি গুলো একটু এডিট করে ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রামে আপলোড করি শুধু মাত্র লাইক পাওয়ার জন্য।

কিন্তু আমি বলবো এই একই কাজ করে তুমি টাকা ইনকাম করতে পারবে। হ্যাঁ, তোমাকে শুদু একটু ক্রিয়েটিভ হয়ে কাজ করতে হবে, যেমন – তুমি যেই ছবি গুলো তোলো সেগুলো কে তোমার একটি ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রাম পেজ খুলতে হবে এবং সেখানে তোমার ছবি গুলো নিয়মিত আপলোড করতে হবে #tag এর সাথে এবং সাথে কিছু ডেস্ক্রিপশন লিখতে হবে এবং ডেস্ক্রিপশন এর শেষে তোমাকে লিখতে হবে সুন্দর ফোটোগ্রাপির জন্য এই নম্বরে কন্টাক্ট করুন বা আমাকে dm করুন।

সেখান থেকে তুমি অনেক client পাবে এবং তাদের থেকে ছবি তোলার জন্য কিছু টাকা charge করতে পারো সাথে কেউ যদি তোমার ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রাম পেজ কোনো ছবি আপলোড করতে চাই নিজেকে propeller করার জন্য সেক্ষেত্তে তুমি একটা amount চার্জ করতে পারো।

আর একটি উপায় হলো তুমি Shutterstock.com, Stock.adobe.com, Alamy.com, Gettyimages.com এ signup করে ফ্রি তে ফটো আপলোড করতে পারবে। তোমার কোনো পেজ খোলা লাগবে না বা কাউকে approach করতে লাগবে না। এই সাইট গুলোতে মাসে মিলিয়ন এর উপর ট্রাফিক আছে যারা সেখান থেকে picture ক্রয় করে।

তার জন্য তোমাকে আমার মতো যত worker আছে যারা ওই picture গুলো তাদের সাইট আপলোড করে তাদের প্রতিটি picture ডাউনলোডের জন্য তোমাকে কিছু টাকা দেয়। কারণ যে ব্যাক্তি ওই picture টি ডাউলোড করে তাকে টাকা দিয়ে ডাউনলোড করতে হয়। সেক্ষেত্রে তোমাকে এই সাইট গুলো কিছু % টাকা রেখে বাকিটা তার worker দের দিয়ে দেয়।

এটি সুন্দর opportunity প্রতিটি ফটোগ্রাফার দের জন্য। তোমাকে শুধু উজারের চাহিদা অনুযায়ী ফটো শুট করতে হবে আর সেগুলো উপলোড করতে হবে। আর ওই ফটো গুলো যত বেশি ডাউনলোড হবে তুমি তত বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবে।

Freelancing :

ফ্রিল্যান্সিং অনলাইন থেকে অনেক করার একটি অন্যতম way কিন্তু এখানে কাজ করতে গেলে তোমার কোনো একটা বিষয়ে ভালো এক্সপ্রিয়েন্সের প্রয়জন হবে। যেমন – ফটো এডিটিটিং, ভিডিও editing, লোগো তৈরী করা, graphic ডিজাইন, কনটেন্ট writing এছাড়া অনেক কিছু।

এই কাজ গুলো করতে গেলে তোমাকে fiverr.com / upwork.com / freelancer.com / guru.com এছাড়া আরো অনেক সাইট আছে যেখানে তুমি join হওয়ার পর তোমার skill দিয়ে অন্য কারো সাহায্য করে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

তবে তোমার যদি কোনো অভিজ্ঞতা না থাকে এই ধরণের কাজের উপর তাহলে তুমি ইউটুব বা গুগলে সার্চ করে তোমার ইন্টারেস্টের উপর কোনো একটি কাজ শিখে এই freelancer সাইট গুলোতে join হয়ে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবে।

আর যদি এই ব্লগটি তুমি subscribe করে রাখো তাহলে তুমি এই freelancing সম্মন্দে খুব শিগ্গিরী একটি আর্টিকেলে পাবে যেখনে শুদু এই বিষয় নিয়ে আলোচনা থাকবে।

Social Media Influence :

সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার একটি খুব সহজ job প্রতিটি সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাবহার কারীর জন্য। কারণ সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার বলতে বজায় তুমি মূলত অন্য কারো সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল কে ম্যানেজ করা। যেমন – যেকোনো নায়ক, নায়িকা ও ইউটুবার দের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল কে মেনেজ করা।

যেখানে মূলত কাজ হলো তোমাকে ওই নায়ক, নায়িকা ও ইউটুবার দের সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে নিয়মিত উপডেট দেওয়া, যেমন কোনো ফটো তুলে সেটাকে এডিট করে আপলোড করা বা কোনো নতুন news এর আপডেট দেওয়া।

কারণ কোনো নায়ক, নায়িকা ও বড়ো ইউটুবার দের কাছে অতটা টাইম থাকেনা যে সে নিজে এই কাজ গুলো একা করতে পারে। সেই কারণে ওই নায়ক, নায়িকা ও ইউটুবার গুলো তোমার আমার মতো ইনফ্লুয়েন্সার কে কাজে লাগিয়ে তার কাজ গুলো করিয়ে নেয় ও তার সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল নিয়মিত আপডেট রাখে তার জন্য তাকে কিছু টাকা দেয়।

এটি কে তুমি ফ্রীলান্সার এর মধ্যে ধরতে পারো। তুমি চাইলে যে কোনো freelancing সাইটে গিয়ে এই কাজের জন্য apply করতে পারো বা তোমার কোনো পছন্দের নায়ক, নায়িকা ও ইউটুবার সাথে কাজ কর জন্য তুমি তাকে ডাইরেক্ট dm করতে পারো এবং কাজের জন্য apply করতে পারো এবং সেখান থেকে তুমি ইনকাম করতে পারবে।

Online survey :

অনলাইন সার্ভে বলতে বোঝাই কোনো কিছুর উপর user এর এক্সপিরিয়েন্স সংগ্র করা। যেমন মনে করুন এই benglablog.site টি একটি কোম্পানি।

তো এই কোম্পানি কে গ্রও করার জন্য আমি একটি survey পরিচলন করবো বিশ্বের সমস্ত অনলাইন ইউসার থেকে যারা আমার কোম্পানি কে জানে এবং তারা আমাকে ওই সার্ভের মাধ্যমে আমার কোম্পানিতে কোথায় উন্নতি করতে হবে এবং কোথায় কি প্রব্লেম আছে যেগুলো কে আমার সাইটের user এর অসুবিধা হচ্ছে সে সম্পর্কে আমার ধারণ দেবে এবং আমি তার জুন তাকে কিছু টাকা পেমেন্ট করবো।

এই অনলাইন সার্ভে ভারতবর্ষে অতটা propeller না কিন্তু us, uk মতো অন্য অন্য দেশে এটা খুব propeller একটি কাজ। এবং আগামী দিনে এটি খুব propeller একটি জব হবে বলে ইন্টারনেট গ্রাহকরা মনে করেন।

কারণ এই অনলাইন সার্ভের মাধ্যমে অনেক ছোট ছোট কোম্পানি অনেক বড়ো হয়ে গেছে। তোমাকে এই কাজ করার জন্য অনলাইন সম্পর্কে একটু এক্সপিরিয়েন্স থাকা দরকার এছাড়া এই কাজ গুলো খোঁজার জন্য ysense.com / ipanelonline.com / valuedopinions.co.in / surveys.google.com এই সাইট গুলোতে join হয়ে তুমি এই কাজ করতে পারো এবং সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবে।

Application :

এপ্লিকেশন থেকে টাকা ইনকামের বিষয় তা আমরা অনেকেই জানি যেমন গেম গেলে টাকা ইনকাম করা তাছাড়া ads এ ক্লিক করে টাকা ইনকাম করা, লিংক শর্ট করে টাকা ইনকাম করা এছাড়া আরো অনেক।

যেমন আইপিএল এ বেডিং লাগানো, Champ cash, Winzo, MPL এপ্লিকেশন এ গেম খেলে টাকা ইনকাম করা বা ভিডিও দেখে তাকে ইনকাম করা জন্য অনেক এপ্লিকেশন আছে যেখান থেকে তুমি টাকা ইনকাম করতে পারবে।

কিন্তু আমি বলবো এপ্লিকেশন এর মাধ্যমে ইনকাম করা টা অতটা propeller না এবং এই এপ্লিকেশনের মাধ্যমে তুমি অন্য কাজের মতো ওতো টাকা ইনকাম করতে পারবে না। তবে তুমি যদি অনলাইনে টাকা ইনকাম করার কথা চিন্তা করো তাহলে তুমি application মাধ্যমে শুরু করতে পারো।

তবে আমি রেকমেন্ড করবো উপরে বলা এপ্লিকেশন গুলোকে ব্যাবহার করে ইনকাম করার জন্য কারণ এখানে টাকা অল্প ইনকাম হলেও তুমি সেই টাকা payout পাবে। কিন্তু অন্য অন্য এপ্লিকেশন গুলো থেকে ইনকাম করার পর payout এর সময় তোমাকে অনেক সম্যসার স্মুখীন হতে হবে।


আমাদের শেষ কথা :

আমি বলতে চাই তুমি যদি উপরে বলা কাজ গুলো ভালো ভাবে করতে চাও এবং অনলাইন থেকে বেশি পরিমানে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে তোমার কাছে একটা computer বা laptop থাকা অবশ্যই প্রয়জন। কারণ মোবাইল এই কাজ গুলো করতে একটু প্রব্লেম হবে তবে প্রথমের দিকে তুমি মোবাইল দিয়ে শুরু করতে পারো এবং পরে কাজের অবস্থা বুজে একটা computer বা laptop সাথে ইন্টারনেট কানেকশন লাগিয়ে কাজ করতে পারো। এটা খুব ভালো হবে।

আর তোমার যদি এই আর্টিকেল টি ভালো লেগে থাকে বা আর্টিকেল পড়ে তোমার উপকার হয় তাহলে আমি তোমাকে এই আর্টিকেলটি তোমার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করবো। আর ইন্টারনেট থেকে ইনকাম বা ব্লোগ্গিং এর সম্পর্কে সমস্ত জানকারী আপডেট পেতে এই বাংলা ব্লগ সাইট টিকে আপনার ইমেইলের মাধ্যমে subscribe করে রাখুন।

মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার কৌশল!

মোবাইল থেকে কি ইনকাম সম্ভব?